আগে ঘরের চোরকে ঠেকাতে হবে

143
AdvertisementCBN-Leaderate

মো. আতিকুল ইসলাম, টরন্টো ||

বাংলাদেশে কেউ ৪০০০০ (চল্লিশ হাজার) টাকা ঋণ পায় না; পেলেও শোধ দিতে না পেরে বাড়ির টিন খুলে নিয়ে যাওয়া হয়, এমনকি অনেককে আত্মহত্যা পর্যন্তও করতে হয়! তার মানে কি দাঁড়াল? আমাদের দেশে ব্যাংক লোন পাওয়াটা ততটা সহজ নয়; অনেক নিয়মকানুন আছে, তাই না!

অপরদিকে কেউ ৪,০০,০০,০০,০০,০০০ (চার হাজার কোটি টাকা) ব্যাংক লোন নিয়ে আবার দেশ থেকে সেই টাকা বিদেশে পাচার করে দিচ্ছে। তাদের কিচ্ছু হচ্ছে না! পার্থক্য কোথায়? সাতটা শূন্য কম আর বেশি, তাই না? এই চোরগুলো বিদেশে এসে বেশ গরমের সাথেই চলছে, এমনকি বিদেশের বাসিন্দাদেরকেও বিপদে ফেলে দিচ্ছে। এদের জ্বালাতে বাড়ি, ঘরের দাম বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে।

এখন প্রশ্ন হল, এর জন্য দায়ী কে? দায়ী হচ্ছে পুরো সিস্টেম। কারা এদেরকে চার হাজার কোটি টাকা লোন দেয়? কেন দেয়? কারা এদেরকে টাকা পাচারে সাহায্য করে? কীভাবে তারা বিদেশের ব্যাংকে সেই টাকা জমা করে? কি মনে হয়? দেশ বা বিদেশের সিস্টেম যারা চালায় তারা জানে না এদের সম্পর্কে?

ব্যাংকের অসাধু কর্মকর্তা তথা চোরদেরকে সহায়তা প্রদানকারীদেরকে শাস্তি প্রদান করার, নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা কার? যেসব দেশে টাকা পাচার হয়ে যাচ্ছে বা চোরেরা বসবাস করছে সেসব দেশের সাথে যোগাযোগের বা দেন দরবার করে উপায় খুঁজে বের করার দায়িত্বটা কার? দায়িত্বটা যাদের তারা কী আসলে তা যথাযথভাবে পালন করছে? না করলে কেন করছে না? মনে কী প্রশ্ন আসে না? কোন রোগ হলে রোগের কারণ বের করে চিকিৎসা না দিলে সেই রোগ কী সারবে? আমরা সাধারণ জনগন কীই করতে পারি এই বিদেশ বিভূঁইয়ে! তাদেরকে মন থেকে ঘৃণা করতে পারি, সামাজিকভাবে বয়কট করতে পারি।

তাদের পেট থেকে টাকা বের করে কী দেশে ফেরত পাঠাতে পারি? তারা তো চুরি করে টাকা এনে এসব দেশে এসে খুব ভালোভাবেই এসব দেশের আইন মেনে চলছে, এমনকি চুরির টাকার ট্যাক্সও পে করছে!

আসলে সমাজে ধনীরা যেমন করে গরীবদেরকে চুষে খায়, এই বড়লোক দেশগুলোও ঠিক সেভাবে অতি সুকৌশলে গরীব দেশগুলোকে শুষে নিচ্ছে। কী ধারণা? এই কথাগুলো ক্ষমতাবানরা জানে না? আমরাই যদি বুঝতে পারি, তারা তো আলবত জানে।

কিন্তু তারা কেন এসব ঠেকাতে কার্যকরী উদ্যোগ নেয় না? তাহলে কী বিষয়টি পরিষ্কার নয় যে তারাও কোন না কোনভাবে এদের থেকে লাভবান হয়? তাহলে বড় চোর কে? যে সিঁদ কেটে দেয় সে? নাকি যে চুরি করে নিয়ে পালায় সে?

আমরা যদি একদিকে ঘরে বসে থাকা সিঁদকাটা লোকদেরকে সমর্থন করি আর শুধুমাত্র চোরের পিছনে ছুটতে থাকি, চুরি কি বন্ধ হবে? আমরা একদিকে এক চোরকে ধাওয়া করতে থাকব, আবার অন্যদিকে আরেক চোর চুরি করে নিয়ে আসবে। তাই সর্বপ্রথমে ঘরের চোরকে ঠেকাতে হবে; তবেই না স্থায়ীভাবে চুরি বন্ধ হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম, টরন্টো প্রবাসী প্রকৌশলী ও সাংস্কৃতিককর্মী
https://www.facebook.com/cbn24.ca/
Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
CBN-Leaderate