কানাডায় প্রবাসী বাংলাদেশির সংখ্যা এক লাখ, হাইকমিশনের তথ্য

1705
AdvertisementLeaderboard

গত শতাব্দীর ষাটের দশকে কানাডায় আসা শুরু করেন বাংলাদেশিরা। তখন দেশটিতে বাংলাদেশিদের সংখ্যা খুব কম থাকলেও এখন সবমিলে বসবাসরত বাংলাদেশির সংখ্যা প্রায় এক লাখ। এমন সংখ্যাই দেয়া রয়েছে কানাডার বাংলাদেশি হাইকমিশনের ওয়েবসাইটে।

প্রথমে ১৯৬০ সালের দিকে কর্মজীবীরা কানাডায় ভিড় জমাতে শুরু করেন। এরপর থেকে অনেকেই শিক্ষা, কর্ম জীবনের জন্য প্রশিক্ষণসহ অনেক কাজে এসেই দেশটিতে বসবাস শুরু করেন।

হাইকমিশনের ওয়েবসাইটে আরও জানানো হয়, গত কয়েক দশকে বেড়েছে অভিবাসীর সংখ্যা এবং ৮০’র দশকে এ সংখ্যা বেড়েছে আরও বেশি। বাংলাদেশিরা সাধারণত দুইভাবে কানাডায় অভিবাসন নেয়।  একটি হচ্ছে স্কিলড ওয়ার্কার ক্যাটাগরি এবং অপরটি ফ্যামিলি ক্যাটাগরি।

কানাডাতে বাংলাদেশিরা সাধারণত অন্টারিও, ব্রিটিশ কলম্বিয়া, কুইবেক, সাসকাচোয়ান, আলবার্টা, টরন্টো, মন্ট্রিয়ল, ভ্যাঙ্কুভার, ক্যালগেরি, এডমন্টন, রেজিনা, এবং অটোয়াতে বসবাস করেন।

পূর্ব টরন্টো বিশেষ করে ড্যানফোর্থ, ভিক্টোরিয়া অ্যাভেনিউ, স্কারবোরোতে বসবাসরত বাংলাদেশিরা নানারকম সহযোগিতামূলক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পরিচালনা করছেন।

১৯৯১ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে দেশটির মন্ট্রিয়লেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশি বসবাস শুরু করেছেন। এছাড়াও এর প্বার্শবর্তী এলাকা পার্ক-এক্সটেনশন এবং প্লামোন্ডোনেও বাস করেন অনেক বাঙালি।

কানাডার ব্যবসাক্ষেত্রে অনেক বাঙালি এরই মধ্যে সুনাম কুড়িয়েছেন। বিভিন্ন মাঝারি এবং ক্ষুদ্র ব্যবসা ছাড়াও এখানকার বাংলাদেশিদের অনেকে রেস্টুরেন্ট, গ্রোসারি, বুটিক শপসহ কানাডার নানা রকম পণ্য বিক্রির দোকান দিয়েছেন।

কানাডার বড় শহরগুলো থেকে বাংলা ভাষায় সাপ্তাহিক, পাক্ষিক সংবাদপত্র বের হচ্ছে। এছাড়াও দেশটিতে বাংলাদেশিদের সংবাদ তুলে ধরতে নিয়মিতভাবে চলছে কয়েকটি অনলাইন এবং প্রিন্ট সংস্করণ।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email