কানাডার সাস্কাটুনে বাংলাদেশের বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত

50
Advertisement

অমিত কুমার উকিল, সাস্কাচুয়ান ||

কানাডার সাস্কাচুয়ান প্রদেশের সাস্কাটুনে বাংলাদেশের বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করেছে প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

অত্যন্ত উৎসাহ-উদ্দীপনা আর যথাযথ মর্যাদায় স্থানীয় লেকভিউ  চার্চে গত ১৮ ডিসেম্বর শনিবার বাংলাদেশী কমিউনিটি এ্যসোসিয়েশন অব সাস্কাচুয়ান (বিকাশ) এর উদ্যোগে সন্ধ্যা ৬ টায় বাংলাদেশ এবং কানাডার জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদবোধন হয়।

এরপর  বাংলাদেশী কমিউনিটি এ্যসোসিয়েশন অব সাস্কাচুয়ান (বিকাশ) এর নবনির্বাচিত সভাপতি মোহাম্মদ আজাদ উদ্বোধনী বক্তব্যের শুরুতেই সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা এবং তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।

তিনি বিজয়ের ৫০ বছর এবং বিকাশের এক যুগ পূর্তিতে সকল ভুল-ভ্রান্তি বিভেদ ভুলে একত্রিত হয়ে বিকাশকে শক্তিশালী সংগঠন হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এরপর বক্তব্য রাখেন স্থানীয় এমএলএ জনাব ব্রড রেডেকপ।

প্রথমবারের মত কমিউনিটির বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময়ে অসামান্য অবদান রাখার জন্য  ডঃ অসিত সরকার, ডঃ নুরুল আমিন চৌধুরী, ডঃ মভিনুল হক, ডঃ মিজানুর রশিদ, ডঃ বদরুল দেওয়ান, ইঞ্জিঃ এসএম খলিলুর রহমান, ডঃ জীবন পোদ্দার, ডঃ আব্দুল আল মামুন, ডঃ চঞ্চল রায়, জাকির হোসাইন, ইঞ্জিঃ শিব শংকর পোদ্দার, কামনাশীষ দেব, মফিজুর রহমান, মোশারফ হোসাইন, তাহমিনা শাহিন, তাপসী পোদ্দার, ডঃ রাজীব পোদ্দার, অমিত কুমার উকিল, নাসরিন নাহার শেলী, পল্লবী মজুমদার এবং নাজমুল হাসান বাপ্পি সহ মোট ২১ জনকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরুতেই সাস্কাটুন বাংলা স্কুলের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পরিবেশনা সবাইকে মুগ্ধ করে। সাস্কাটুন  বাংলা স্কুলের পরিবেশনায় অংশগ্রহণ করে জায়ান, নাবিলা,পূর্নতা, আড়িয়ান, অরাহি, অনুষা, আরিয়া, প্রিশা, শ্রিদুলা, মধুরিমা, দেবাদৃতা, সানভি, শায়ুরি, আয়ান, আদিব, আরহাম, সৌমিক, মিথিলা এবং সুরূপা।

সাস্কাটুন বাংলা স্কুল ছাড়াও স্থানীয় শিল্পীরা বিভিন্ন নৃত্য এবং সংগীত পরিবেশন করেন।

বাংলাদেশী স্টুডেন্টস এস্যোসিয়েশন  ইউনিভার্সিটি অফ সাস্কাচুয়ান (BSAUS)এর সার্বিক সহযোগিতায় অনুষ্ঠান এগিয়ে যায়। হল রুমের বাইরে ফুচকা, মিষ্টি, বিরিয়ানি আর পোশাকের দোকানে আড্ডা ফিরিয়ে নিয়ে যায় চিরচেনা আমাদের গ্রাম্য মেলায়।

প্রায় তিন শতাধিক প্রবাসী বাঙ্গালী যেন কিছুটা হলেও ক্ষনিকের জন্য নস্টালজিক হয়ে পরে। ইতিমধ্যে অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষন তানভীর আলম সজীব তার পরিবেশনা শুরু করেন।

তানভীর আলম সজীব জনপ্রিয় গানের পাশাপাশি দেশাত্মবোধক সুরের মূর্ছনায় মাতিয়ে তুলেন উপস্থিত দর্শকদের।

সাস্কাচুয়ান প্রভিন্সের সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক আর দুই ডোজ ভ্যাক্সিনেশনের প্রমানপত্র আর পরিচয়পত্র দেখিয়ে ভেতরে প্রবেশ করলেও উপস্থিত অনেক দর্শক বিকাশকে এরকম অনুষ্ঠান করার জন্য ধন্যবাদ জানান।

বিকাশের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাইদুজ্জামান তালুকদার বৈরি আবহাওয়া উপেক্ষা করে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানকে সাফল্যমন্ডিত করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email