কানাডায় ভ্যাকসিন লটারিতে ১ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার

69
AdvertisementLeaderboard

কানাডায় বর্তমানে ৬৭ দশমিক ৭৬ শতাংশ নাগরিক পুরোপুরি ভ্যাকসিন নিয়েছে এবং এক ডোজ নিয়েছে ৭৪ শতাংশ। বাকীদেরকে উদ্ভূত করার জন্য সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিচ্ছে।

এরমধ্যে অ্যালবার্টা প্রদেশ ঘোষণা দিয়েছে, যারা উভয় ডোজ নিয়েছেন, প্রতি মাসে লটারির মাধ্যমে তাদের মধ্যে একজন করে ১ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে। শুধু ঘোষণাই নয়; ইতিমধ্যে তা কার্যকর হয়েছে এবং দুই ব্যক্তি পুরস্কৃত হয়েছেন। সিবিসি থেকে এই খবর জানা যায়।

আগস্ট মাসের প্রথম লটারি বিজয়ী হলেন ল্যাংডনের একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ ট্রেসি ম্যাকিভর এবং সেপ্টেম্বর মাসে দ্বিতীয় পুরস্কার অর্জন করেন এ্যামি জি’স নামে ক্যালগারি শহরের এক ভদ্র মহিলা। অ্যালবার্টার প্রিমিয়ার জন কেনি উভয়কেই ভিডিও কলে অভিনন্দন জানান।

জনগণকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিতে উৎসাহিত করার জন্য বাংলাদেশি টাকায় ৬ কোটি ৮০ লক্ষ টাকার পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। তবে এই লটারি কয় মাস ধরে চলবে তা প্রাদেশিক সরকার জানায়নি।

প্রাদেশিক সরকারের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় যে, মোট ১০ লক্ষ ৮৫ হাজার নাগরিকের মধ্যে লটারি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

জানা গেছে, কানাডার অন্যান্য প্রদেশের চেয়ে অ্যালবার্টা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নেওয়ার দিক থেকে পিছিয়ে রয়েছে। যেখানে সারা কানাডাতে ১২ বছরের ওপরে ভ্যাকসিন নেওয়ার হার এখন পর্যন্ত ৭৬ দশমিক ৭৬ শতাংশ, সেখানে ওই প্রদেশে ভ্যাকসিন নেওয়া হার ৭০ দশমিক ২০ শতাংশ মাত্র।

এই আকর্ষণীয় অঙ্কের পুরস্কার ছাড়াও আরও ৪২ জনকে দেশের অভ্যন্তরে টুরিস্ট স্পট জায়গা ভ্রমণের জন্য প্লেনের টিকিট, ফ্রি হোটেলে থাকার খরচ বহন করা হয়েছে। তাছাড়াও যারা দুই ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন, তাদের সবাইকে ১০০ কানাডিয়ান ডলার প্রণোদনানা পুরস্কারও প্রদান করা হচ্ছে।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email