টরন্টোর মুসলিম শিক্ষার্থীদের স্কুলেই প্রার্থনার সুযোগ

AdvertisementLeaderboard
 প্রার্থনারত মুসলিম শিক্ষার্থীরা; ছবিঃ সংগ্রহীত

কানাডার টরন্টোর পিল স্কুল বোর্ড কমিটির এক বৈঠক শেষে মুসলিম শিক্ষার্থীদের শুক্রবারের প্রার্থনার জন্য স্কুলের মধ্যেই স্থান দেওয়ার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইসলামভীতি ও মুসলমানদের প্রতি নানা বিদ্বেষমূলক মন্তব্য বাড়তে থাকার মধ্যেই এক বিবৃতিতে ওই সিদ্ধান্তে সমর্থনের কথা জানিয়েছে অন্টারিও প্রাদেশিক সরকার।

শিক্ষামন্ত্রী মিটজি হান্টার, এবং শিশু ও যুব বিষয়ক মন্ত্রী মাইকেল কোটেউ বলেছেন, আমরা জানি পিল জেলা স্কুল কমিটি তাদের শিক্ষার্থীদের প্রার্থনার সুযোগ দেওয়ার জন্য শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করে যাচ্ছেন। শিক্ষার্থীদের প্রার্থনার সুযোগ অব্যহত রাখতে স্কুল কমিটি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাতে আমরা খুবই খুশি। অন্টারিও প্রদেশের সকল বৈচিত্রকে আমলে নিয়ে সকল প্রকার বিভেদ দূর করার জন্য শ্রদ্ধা ও গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি আমরা।

পিল স্কুল কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মুসলমান শিক্ষার্থীরা যেন শুক্রবার একসঙ্গে প্রার্থনা করতে পারে সে জন্য জায়গার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অনেক বছর ধরেই এরকমটাই হয়ে আসছে এবং টরন্টোর অন্যান্য সরকারি স্কুলগুলোতেও একই নিয়ম রয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি মুসলমান বিরোধী বিক্ষোভ ও এক পিটিশনে জুমআ আদায়ের সুযোগ দেওয়া বন্ধ করার দাবি জানান সমালোচক ও বিক্ষোভকারীরা।

সমালোচকরা মনে করেন ধর্ম নিরপেক্ষ একটি স্কুলে একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের এ সুযোগ দেওয়া হলে তা বিভেদ সৃষ্টি করবে এবং এ ধরনের কাজ গ্রহণযোগ্যও নয়।

পুলিশের উপস্থিতিতে বুধবারের ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে প্রার্থনা শেষে কক্ষটি পরিষ্কার করে ফেলা হবে।

বৈঠক শেষে স্কুল বোর্ডের চেয়ারপার্সন জেনেল ম্যাকডৌগাল্ড বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও ইমেইলে ছড়িয়ে পড়া মুসলিমবিরোধী নানা কথাবার্তায় আমরা হতভম্ব। এগুলো আমাদের অনেক শিক্ষার্থীর মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। কোনো একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর প্রতি এ ধরণের কথাবার্তা আমরা কখনোই সমর্থন করিনা। এগুলো কোনোভাবেই আমাদের চিন্তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

মেট্রো নিউজ
Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email