বাংলাদেশে চলছে নিয়ন্ত্রিত গণতন্ত্র –বলছে দ্য ইকোনমিস্ট

1071
AdvertisementLeaderboard

বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে নিয়ন্ত্রিত গণতন্ত্র বলে আজ এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক ম্যাগাজিন দ্য ইকোনমিস্ট। প্রতিবেদনে বিএনপিকে ভঙ্গুর দল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে এবং আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড বিস্ফোরণের কারণেই বাংলাদেশের গণতন্ত্র ‘ঝুঁকিতে’ পড়েছে বলে বলা হয়েছে।

বুধবার প্রকাশিত ম্যাগাজিনটির বিশ্লেষণমূলক প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনের দায়িত্ব থাকবে আজ (বুধবার) শপথ নেওয়া নির্বাচন কমিশনের ওপর। বাংলাদেশে ২০০১ সালের নির্বাচনের পর থেকে দেশটিতে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তেমন শক্তিশালী কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়নি।

ইকোনমিস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০০৭ সালের নির্বাচনের সময়কালে ‘ক্যু’ এর মাধ্যমে দেশটির ক্ষমতাভার নিয়ে ২০০৮ সালে নির্বাচন দেয় সেনাবাহিনী। এরপর নির্বাচন হয় ২০১৪ সালে যেটি ছিল একটি ‘ধোঁকা’।

দক্ষিণ এশিয়ার স্বাধীন দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই সবচেয়ে বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় রয়েছেন, এবং তাঁর এখন দৃশ্যমান প্রতিদ্বন্দ্বী প্রয়োজন বলেও প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়।

ক্ষমতাসীন শেখ হাসিনার চোখে তিক্ত ও দুর্বল দল, খালেদা জিয়ার ‘ভঙ্গুর’ বিএনপি বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নির্বাচন কমিশন হিসেবে দাবি করেছে। এছাড়া নির্বাচন সময়কালের জন্য দেশটিতে প্রচলিত থাকা ‘তত্ত্বাবধায়ক’ সরকার ব্যবস্থা তুলে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। এ কারণে দলটি অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সমালোচনার মুখেও পড়েছে বলে জানাচ্ছে দ্য ইকোনমিস্ট

২০০৪ সালে তৎকালীন বিরোধী দল আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড বিস্ফোরণের কারণেই ১৬০ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশটির গণতন্ত্র ঝুঁকিতে পড়েছে বলে উল্লেখ করা হয় ওই প্রতিবেদনে।

এছাড়া আরও বলা হয়, ২০২১ সালে বাংলাদেশের ৫০তম বার্ষিকী পালনও আওয়ামী লীগের হাত ধরে হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রতিবেদনটির লিঙ্কঃ https://espresso.economist.com/581b41df0cd50ace849e061ef74827fc
Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email