মহাকাশে তৈরি হলো বিস্কুট

41
ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত
AdvertisementCBN-Leaderate

মহাকাশে প্রথমবারের মতো বানানো হলো চকলেট গুঁড়া মেশানো বিস্কুট। মহাকাশচারীরা আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে বিশেষ ধরনের চুলায় এ বিস্কুট তৈরি করেন। মহাশূন্যে ব্যবহারের উপযোগী করে বানানো ওই বিশেষ ধরনের চুলাকে বলা হয় ‘জিরো গ্র্যাভিটি ওভেন’।

স্পেসএপ ড্রাগন মহাকাশযানে পৃথক বেকিং প্যাকেটে করে তিনটি বিস্কুট গত ৭ জানুয়ারি মহাকাশ স্টেশন থেকে পৃথিবীতে পাঠানো হয়েছে। খবর বিবিসির।

মহাকাশচারী লুকা পারমিটানো এবং ক্রিশ্চিনা কোচের বিস্কুট তৈরির এ পরীক্ষার কথা সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়। এ পরীক্ষার উদ্দেশ্য আসলে দীর্ঘ সময়ের মহাকাশ ভ্রমণে খাদ্যের সমস্যার একটি সহজ সমাধান খুঁজে বের করা।

ডাবল ট্রি নামে একটি প্রতিষ্ঠান পৃথিবী থেকে এ বিস্কুট বানানোর মণ্ড সরবরাহ করেছিল। প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মকর্তা জানান, বিস্কুটগুলো শিগগির খাদ্য বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে দেখবেন। এর পরই জানা যাবে, খাওয়ার জন্য এগুলো নিরাপদ কিনা।

মহাকাশ স্টেশনে পরীক্ষমূলকভাবে পাঁচটি বিস্কুট বেক করা হয়। রান্নার সঠিক তাপমাত্রা ও সময় জানার জন্য এগুলো ভিন্ন ভিন্ন দিনে বেক করা হয়। পৃথিবীতে এ বিস্কুট বেক করতে ১৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ২০ মিনিটের মতো লাগে। তবে মহাকাশে লাগে অনেক বেশি সময়। প্রথম বিস্কুটটি ২৫ মিনিটে বানানো হয়, কিন্তু তা কাঁচাই থেকে যায়। দ্বিতীয়টি বানানো হয় ৭৫ মিনিটে, যেটা মহাকাশ স্টেশনে চমৎকার সৌরভ ছড়িয়ে দেয়। চতুর্থ ও পঞ্চম বিস্কুট দুটি বানানো হয় ১২০ মিনিটে। পরে ২৫ মিনিটে ঠান্ডা করা হয়। ষষ্ঠ বিস্কুটটি বানানো হয় ১৩০ মিনিটে, এটি ঠান্ডা করা হয় ১০ মিনিটে।

গত বছরের ডিসেম্বরে মহাকাশ থেকে এক টুইটে নাসার বিজ্ঞানী মহাকাশে বিস্কুট বানানোর কথা লেখেন। ওজনশূন্য পরিবেশের উপযুক্ত প্রাথমিক ধাঁচের একটি চুলায় এসব বিস্কুট বেক করা হয়। দীর্ঘ মহাকাশ ভ্রমণে নভোচারীরা খাবার তৈরি করে খেতে চাইলে দরকার পড়বে স্বল্প গ্র্যাভিটির বিভিন্ন যন্ত্রপাতি। আর সে উদ্দেশ্যেই তৈরি করা হয় ওই চুলা।

সূত্র: সমকাল
Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
CBN-Leaderate