মাতৃভাষা দিবস পালন করলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফোরাম, কানাডা (ভিডিও)

AdvertisementLeaderboard

ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে টরন্টোয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফোরাম, কানাডা।

এ উপলক্ষে ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টায় ড্যানফোর্থের তন্দুরি রেস্টুরেন্টে এক আলোচনা সভায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরা।

সভার প্রধান অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক এবং বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ড. সৈয়দ মোহাম্মদ শাহেদ বাংলা এবং উর্দু ভাষার তুলনামূলক বিশ্লেষণ করেন। তিনি বলেন, উর্দু ভাষা দেখতে মুসলমান ভাষা মনে হতে পারে, কিন্তু বাংলা ভাষা যেখান থেকে এসেছে উর্দু ভাষাও সেখান থেকে এসেছে। উর্দুর চেয়ে বাংলা ভাষায় সংস্কৃত শব্দ কম আছে বলেও জানান তিনি।

লেখক ও কলামিস্ট ড. মোজোম্মেল খান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণেই জীবন দিয়েছিলেন ভাষা শহীদেরা। কিন্তু এই দিনটি এখন সকলেই শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছেন। বাঙালিদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের একটি দিন একুশে ফেব্রুয়ারি।

সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হালিম মিয়া বাংলাকে টরন্টোর দাপ্তরিক ভাষার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

সভায় সূচনা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইসতিয়াক উদদীন আহমেদ। এছাড়া ভাষা দিবসের তাৎপর্য নিয়ে কথা বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. ইয়ারুল কবীর, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার কামরুল হাফিজ, সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট শরিফ সালাম, লেখিকা তাসরীনা শিখা, ব্যবসায়ী একেএম জহিরউদ্দিন, ও বায়েস-এর নির্বাহী পরিচালক ইমামউদ্দীন।

কবিতা আবৃত্তি করেন আসমা হক ও স্নেহাশীষ রয়। আলোচনা সভার সঞ্চালনায় ছিলেন সংগঠনটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিন্টু।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী জুনায়েদ আনোয়ার চয়নের দোতারায় দেশাত্মবোধক সুরের তালে সভা শেষ হয়।

এরপর সংগঠনের পক্ষ থেকে একুশের প্রথম প্রহরে ড্যানফোর্থে স্থাপিত দুটি আলাদা শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

IMG_8717-e1487663438907এদিন মাহবুবুল হক ওসমানীর সম্পাদনায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৭ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের লেখা নিয়ে একটি স্মরণিকা প্রকাশিত হয়।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email