মুনিয়ার অপরাধ কতটুকু ছিল?

54
মোসারাত জাহান মুনিয়া ও বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর। ছবি : সংগৃহীত
AdvertisementCBN-Leaderate

কাজী আনিছ || 

অপরাধ বিজ্ঞান (Criminology) সম্পর্কে জানা ন্যূনতম ধারণা রাখেন, তারা মাত্রই জানেন, প্রত্যেক অপরাধ পাপ, কিন্তু প্রত্যেক পাপ অপরাধ নয়।

যেমন, চুরি করা পাপ আবার অপরাধও। কিন্তু ধর্মীয় আচার অনুসরণ না করা পাপ ধর্মমতে, কিন্তু অপরাধ নয়।

অর্থাৎ পাপ বা অনৈতিকতা এবং অপরাধের মধ্যে বিস্তর পার্থক্য বিদ্যমান। যেমন, কেউ ধর্মীয় আচার মানেন না। ধর্ম মতে, তা পাপ হতে পারে। কিন্তু আইনগতভাবে তা অপরাধ নয়।

তাই কারো প্রতি কোনো অপরাধ সংঘটিত হলে, তার পাপ বা অনৈতিকতা দিয়ে ওই অপরাধকে বৈধতা দেওয়া যাবে না।

যেমন ধরুন, কেউ রোজা রাখে না। এটা ধর্ম মতে পাপ, কিন্তু অপরাধ নয়। যদি বেরোজাদার কাউকে কাউকে খুন করা হয়, তাহলে বলা যাবে না যে রোজা রাখতো না, এই সেই করতো, তাই খুন ঠিক আছে, এটাই প্রাপ্য। এমনটা বলা আরেক পাপ বা অনৈতিকতা।

এমনকি পূর্বের কোনো অপরাধ দিয়ে সাম্প্রতিক ঘটা অপরাধেরও বৈধতা দেওয়া যাবে না। যেমন ধরুন, একজন লোক ডাকাত। তার নামে অনেক মামলা। পরে একদিন রাস্তায় ধরে তাকে মেরে ফেললেন। তখন এটা বলা যাবে না যে, ওই লোক ডাকাত, তার নামে আগে মামলা ছিল।

অর্থাৎ তার পূর্বের কোনো অপরাধই এটা ডিমান্ড করে না যে তাকে মেরে ফেলতে হবে। এমনকি ডাকাতি করার সময় ধরা পড়লেও তাকে মেরে ফেলাও অপরাধ।

সুতরাং দেখা যাচ্ছে, পাপ, অনৈতিকতা বা পূর্বের অপরাধ কোনোটাই কোনো অপরাধের ভিত্তি হতে পারে না।

যারা মুনিয়া ও তার পরিবার নিয়ে কথা বলছেন, ধরেই নিলাম, মুনিয়া বা তার পরিবার টাকার লোভে ব্যবসায়ীর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছে। ধরেই নিলাম, মুনিয়ার আগে একশটা প্রেম ছিল। ধরেই নিলাম, মুনিয়ার চরিত্র খারাপ ছিল। ধরেই নিলাম, মুনিয়া একজন বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে সম্পর্ক করেছে।

এগুলোর প্রত্যেকটি সামাজিক ও ধর্মীয় মতে, অনৈতিকতা বা পাপ হতে পারে। কিন্তু একটিও আইনত অপরাধ নয়। তাই, মুনিয়ার অস্বাভাবিক মৃত্যুর নেপথ্যে এগুলোকে ভিত্তি করে তার মৃত্যুর বৈধতা দেওয়া অন্যায়। মোটেও আইনসম্মত নয়।

যারা এসবের উপর ভিত্তি করে মুনিয়ার মৃত্যুকে তার ‘প্রাপ্য’ বলছেন, তারা প্রত্যেকেই আইন লঙ্ঘন করছেন। তাদের সঙ্গে তালেবানদের কোনো পার্থক্য নেই। তালেবানরাই এমন মত পোষণ করেন।

যারা এসব বলছেন, তারা কি প্রেম করেননি? ধর্মমতে, প্রেম কিন্তু পাপ। তারা কি কোনো নারী বা পুরুষের সঙ্গে বসে আড্ডা দেননি, মেলামেশা করেননি? ধর্মমতে, এটাও পাপ। যে রিপোর্টার মুনিয়ার ‘চারটা প্রেম’ লিখলেন, তিনি কি প্রেম করেননি? ধর্মমতে এটাও পাপ। তাহলে, এবার যদি আপনাকে কেউ মেরে ফেলে বা আত্মহত্যায় প্ররোচিত করে, তাহলে কি ওই প্রেম, পাপ বা অনৈতিকতাকে ভিত্তি করা যাবে? খুনের বৈধতা দেওয়া যাবে?

অবশ্যই নয়।

সুতরাং, মুনিয়া নিষ্পাপ না হতে পারেন, মুনিয়া কোনো অপরাধ করেননি। তিনি শতভাগ নিরপরাধ। অপরাধী হলেও তার খেসারত কখনই মৃত্যু নয়।

কথা বলুন তাই অপরাধ নিয়ে। পাপ বা অনৈতিকতার কথা বলে অপরাধকে মুছে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। অপরাধ ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা বেআইনি। বেআইনি কাজ করবেন না…

মনে রাখবেন, একজন অপরাধী-নিরপরাধ, পাপী, নিষ্পাপ যে কারো বিরুদ্ধে ঘটা বিন্দুমাত্র অপরাধের শাস্তি নিশ্চিত করাই আইনের শাসন।

এ ব্যাপারে সোচ্চার হওয়া আমাদের নৈতিক ও ধর্মীয় দায়িত্বও…

কাজী আনিছ, শিক্ষক, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

https://www.facebook.com/cbn24.ca
Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
CBN-Leaderate