সেলফি, ক্ষমতা প্রদর্শণের বড় উপায়

949
কাজী আনিস
AdvertisementLeaderboard

Kazi Anis

ঢাকা থেকে

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার সঙ্গে সেলফি তুলে এক সাংবাদিক ফেসবুকে দিয়েছেন।

ছবিটি দেখেছিলাম অনেক আগে।

ছবি বিশ্লেষণ করে যা বুঝলাম, ওই কর্মকর্তা কোনো এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখছেন। সামনের দিকে তাকিয়ে আছেন। আর ওই সাংবাদিক চুপি চুপি কাছে গিয়ে মোবাইলটা নিয়ে হাতটা তোলে ওই কর্মকর্তাকে ফ্রেমে এনে ক্লিক করে দিলেন। সেলফি হয়ে গেল। ফেসবুকে এসে গেল। ওই কর্মকর্তা জানেনই না।

আমার পরিচিত অনেক সাংবাদিকের ফেসবুকে এখন এমন সেলফি দেখি। কর্মকর্তা ভাত খাচ্ছেন, তিনি বা তাঁরা পিছনে গিয়ে সেলফি তুলে ফেললেন। ফেসবুকে এসে গেল। কর্মকর্তা কোনো অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন, তাঁকে ফ্রেমবন্দী করে ক্লিক করে দিলেন। ফেসবুকে এসে গেল। কর্মকর্তা হাঁটছেন। ক্লিক। ফেসবুকে এসে গেল। কর্মকর্তা প্রেস কনফারেন্সে বক্তব্য রাখছেন। সেলফি। ফেসবুকে এসে গেল।

গণমানুষের জন্য কাজ করার দাবিদার এ সাংবাদিকদের আমি কখনও দেখলাম না, কোনো খেটে খাওয়া মানুষের সঙ্গে সেলফি তোলে ফেসবুকে দিতে। তাদের সেলফিতে দেখা যায় না দিনরাত পরিশ্রম করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে মাঠে কাজ করা কোনো কৃষককে, দেখা যায় না রাস্তায় রাস্তায় খাবার খোঁজে বেড়ানো কোনো নিদারুণ অসহায় শিশুকে। এসব সেলফিতে পাওয়ার নেই, ক্ষমতা নেই।

আমি কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে সেলফি তোলার বিরুদ্ধে নই। কিন্তু এমন সেলফি দেখি, যা দেখে স্পষ্ট বোঝা যায় ওই কর্মকর্তা ওই সেলফি সম্পর্কে জানেনই না। আবার জানলেও প্রস্তুত না। অপ্রস্তুত থাকলেও ওই কর্মকর্তা না বলতে পারেন না। সেলফির একটা ক্ষণ থাকে, মুহূর্ত থাকে, শারীরিক ও মানসিক সমান অংশগ্রহণ দরকার। কিন্তু এসব সেলফিতে তা থাকে না। ফলে, বোঝাই যায়, ওই সাংবাদিক এ ছবি ফেসবুকে দিয়ে বোঝাতে চান, তিনি অনেক পাওয়ারফুল, ক্ষমতাবান।

ক্ষমতা প্রদর্শণের বড় উপায় এখন সেলফি, আর বড় পাত্র ফেসবুক!

শুধু সেলফিতে থাকা চাই বড় কেউ!

আসুন না, আমরা ছোট মানুষেরা, ক্ষমতাহীন মানুষেরা ফেসবুকে ভেসে বেড়ানো এমন ক্ষমতার বিপরীতে নতুন কিছু নিয়ে হাজির হই

চিন্তা করছি, আজ এক রিকশাওয়ালার সঙ্গে সেলফি তোলে ফেসবুকে দেব।

মাঝে মাঝে মনে হয়, যানজট মাড়িয়ে প্রচণ্ড ঠাণ্ডা উপেক্ষা করে গতরে খেটে কখনও খেয়ে কখনও না খেয়ে যে লোক রিকশা চালিয়ে চালিয়ে বাড়িতে টাকা পাঠায়, তার এ টাকায় কতগুলো অসহায় জীবন বাঁচে, স্বপ্ন দেখে।

তার চেয়ে ক্ষমতাবান মানুষ এ দেশে আর কেউ নেই।

 

লেখকঃ

শিক্ষক, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email